আইপিওর টাকায় উৎপাদন ক্ষমতা বাড়াবে ফরচুন সুজ

fipo
শেয়ারটাইম্‌স২৪ডটকম: দেশের ট্যানারি খাতের শতভাগ রপ্তানিমূখী কোম্পানি ফরচুন সুজ লিমিটেড সম্প্রতি পুঁজি বাজারে আসার অনুমোদন পেয়েছে। গত ১৬ আগস্ট থেকে কোম্পানিটির আইপিও আবেদন শুরু হয়েছে। যা আগামী ২৮ আগস্ট শেষ হবে। সম্প্রতি কোম্পানির বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শেয়ার টাইমস২৪ডট কম এর সাথে কথা বলেছেন কোম্পানি সচিব মোঃ রিয়াজ হায়দার।

শেয়ারটাইমস২৪: ফরচুন সুজ দেশে ব্যবসা শুরু করে কবে?

রিয়াজ হায়দারঃ আমাদের কোম্পানির চেয়ারম্যান মোঃ মিজানুর রহমান দীর্ঘদিন ধরেই চামড়া খাতের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছেন। এর ধারাবাহিকতায় ২০০৮ সালে কোম্পানিটি গঠনের উদ্যোগ নেওয়া হয়। পরবর্তীতে ২০১০ সালে কোম্পানিটি ইনকরপোরেট হয়। অবশেষে ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর থেকে কোম্পানিটি উৎপাদন শুরু করে। কোম্পানিটি প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই এর ব্যবসা সম্প্রসারণের প্রচেষ্টা চলতে থাকে। এর পরিপ্রেক্ষিতে কোম্পানিটি পুঁজি বাজারে আশার উদ্যোগ নিয়েছে। তাছাড়া আমাদের চেয়ারম্যান শুরু থেকেই কোম্পানির ক্রেতা বাড়ানোর জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। বর্তমানে চীন, জার্মানী, তাইওয়ান, সুইজারল্যান্ড সহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে আমাদের পন্য রপ্তানী হচ্ছে। বিশেষ করে ইউরোপের বাজারে আমাদের পণ্যের ব্যপক চাহিদা রয়েছে। এজন্য আমাদের কোম্পানির উৎপাদন সক্ষমতা বাড়ানোর জন্য প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ এবং আনুষাঙ্গিক যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম স্থাপনের জন্য পুঁজি বাজার থেকে তহবিল সংগ্রহের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

শেয়ারটাইমস২৪: দেশের চামড়া খাতে বর্তমান অবস্থা কেমন ?

রিয়াজ হায়দারঃ এটি একটি সম্ভাবনাময় খাত। এ খাতের সম্ভাবনা ও পণ্যের চাহিদা ক্রমশ বাড়ছে। এর ফলে নতুন উদ্যোক্তারা এ খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী হয়ে উঠছে।

শেয়ারটাইমস২৪: পুঁজি বাজার থেকে সংগৃহীত তহবিল ব্যবহারের মাধ্যমে কোম্পানীর সক্ষমতা কত টুকু বাড়বে?

রিয়াজ হায়দারঃ পুঁজি বাজার থেকে অর্থ সংগ্রহের মাধ্যমে উৎপাদন ক্ষমতা বাড়ানো প্রয়োজনীয় অবকাঠামো নির্মাণ সহ আনুষাঙ্গিক যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম স্থাপন করা হবে। এর ফলে কোম্পানীর উৎপাদন ক্ষমতা ২০ থেকে ২৫ শতাংশ বেড়ে যাবে।

শেয়ারটাইমস২৪: শ্রমিকদের স্বার্থ সংরক্ষণে কোম্পানির ভূমিকা কি?

রিয়াজ হায়দারঃ যেহেতু আমাদের কোম্পানিটি শত ভাগ রপ্তানীমুখি প্রতিষ্ঠান তাই ক্রেতাদের শর্ত অনুসারে আমাদের বিভিন্ন ধরনের কমপ্লায়েন্স মেনে চলতে হয়। এর মধ্যে শ্রমিক অধিকার অন্যতম। তাই এ ক্ষেত্রে আমাদের নূন্যতম ছাড় দেয়ার সুযোগ নেই। এমনকি কমপ্লায়েন্সে ঘাটতি থাকলে ক্রেতাদের অর্ডার বাতিলেরও সম্ভাবনা থাকে। এর ফলে শ্রমিকদের স্বার্থ সংরক্ষণ এবং প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে আমরা সম্পূর্ণ সচেতন রয়েছি।

শেয়ারটাইমস২৪: আপনার প্রতিষ্ঠানে নারী শ্রমিকদের অংশগ্রহণ কেমন?

রিয়াজ হায়দারঃ আমাদের প্রতিষ্ঠানের অধিকাংশ শ্রমিকই নারী। বর্তমানে আমাদের ফ্যাক্টরীতে নারী শ্রমিকের সংখ্যা প্রায় ৫৫ থেকে ৬০ শতাংশ। তাছাড়া আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহিত অর্থে কোম্পানির উৎপাদন ক্ষমতা বাড়ানো হলে নারী শ্রমিকের সংখ্যা আরও বাড়বে। আমাদের কোম্পানি স্থানীয় পর্যায়ে নারী ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।

শেয়ারটাইমস২৪: বর্তমানে বিশ্বের কতটি দেশে আপনাদের পণ্য রপ্তানী হচ্ছে।

রিয়াজ হায়দারঃ বর্তমানে আমরা তাইওয়ান, নেদারল্যান্ড, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, কানাডা এবং জার্মানীতে পন্য রপ্তানী করছি। তবে ইউরোপের বাইরেও আমরা নতুন বাজার খোজার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এর ফলে ভবিষ্যতে বিশ্বের আরও বেশ কয়েকটি দেশে আমাদের পন্য রপ্তানীর সম্ভাবনা রয়েছে।

শেয়ারটাইমস২৪: কি কারণে বিনিয়োগকারীরা আপনারা কোম্পানিতে বিনিয়োগে আগ্রহী হবেন?

রিয়াজ হায়দারঃ বেশ কতগুলো দিক বিবেচনায় বিনিয়োগকারীরা এই কোম্পানীতে বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। এর মধ্যে রয়েছে কোম্পানিটি বিশ্বের নামীদামি দেশগুলোতে পণ্য রপ্তানী করে থাকে। আমাদের ক্রেতা ভাল তাছাড়া পণ্যেরও ভাল চাহিদা রয়েছে। এছাড়াও এ খাতের অন্যান্য কোম্পানির সাথে তুলনা করে দেখতে পারেন। সেই সাথে কোম্পানীর শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) এবং শেয়ার প্রতি সম্পদ মূল্য (এনএভি) বিবেচনা করে বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিতে পারেন বলে আমি মনে করি।

শেয়ারটাইমস২৪: বিনিয়োগকারীদের উদ্যেশ্যে কিছু বলুন?

রিয়াজ হায়দারঃ বিনিয়োগকারীদের উদ্যেশ্যে আমার বার্তা এটাই তাদের বিনিয়োগকৃত অর্থের যথাযথ প্রতিদান প্রদানের ক্ষেত্রে আমরা সচেষ্ট থাকব। বিনিয়োগকারীরা এই অর্থ ব্যাংকেও রাখতে পারতেন এবং সেখান থেকে নির্দিষ্ট হারে মুনাফা পেতেন। যেহেতু বিনিয়োগকারী ব্যাংকে টাকা না রোখে আমাদের উপর আস্থা রেখে বিনিয়োগ করবেন সেহেতু আমরা তাদের আস্থার প্রতিদান দেয়ার ক্ষেত্রে সচেষ্ট থাকব। আমাদের কোম্পানিতে বিনিয়োগ করে যাতে বিনিয়োগকারীরা ক্ষতিগ্রস্থ না হন বরং মুনাফা অর্জনে সমর্থ হন সে দিকে লক্ষ্য থাকবে।

শেয়ারটাইমস২৪: শেয়ারটাইমস২৪ডট কমকে সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

রিয়াজ হায়দারঃ আপনাকে ও শেয়ারটাইমস২৪ডট কম পরিবারকেও ধন্যবাদ।