বিএসইসি ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসির জন্য আলাদা বিভাগ খুলছে

bseclogo
শেয়ারটাইম্‌স২৪ডটকম: স্টিয়ারিং ও টেকনিক্যাল কমিটি গঠনের পর এবার ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসির জন্য আলাদা বিভাগ খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। মঙ্গলবার কমিশন সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

সভা শেষে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিএসইসি জানায়, ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসি-সম্পর্কিত কার্যক্রম সুসংগঠিতভাবে পরিচালনার জন্য ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসি ডিপার্টমেন্ট নামের একটি নতুন বিভাগ খোলার প্রস্তাব অনুমোদন হয়েছে।

উল্লেখ্য, দেশের সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে আর্থিক ব্যবস্থাপনা; বিশেষ করে সঞ্চয় ও বিনিয়োগ সম্পর্কে সিদ্ধান্ত গ্রহণের দক্ষতা বাড়াতে ‘ফিন্যান্সিয়াল লিটারেসি’ বা ‘আর্থিক শিক্ষা’ নামের একটি জাতীয় কর্মসূচি এগিয়ে নিচ্ছে বিএসইসি। গেল মাসে এক দশক মেয়াদি কর্মসূচিটি চালু হয়। এর আওতায় শুরুতে বাজারসংশ্লিষ্টদের প্রশিক্ষণ ও সচেতনতা বাড়ানোর ওপর জোর দেয়া হলেও পর্যায়ক্রমে দেশের বিভিন্ন স্তরের মানুষের মধ্যে তা ছড়িয়ে দেয়া হবে বলে জানা গেছে।

বিএসইসি কর্মকর্তারা জানান, স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার আওতায় মানুষকে আর্থিক বিষয়াদিতে শিক্ষিত ও সচেতন করার এ কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে। স্বল্পমেয়াদে অর্থাৎ ২০১৬ ও ২০১৭ সালে শেয়ারবাজারের বিনিয়োগকারী, শেয়ারবাজারসংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী, সেনাবাহিনী, বিচারক ও সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। দেশব্যাপী প্রশিক্ষণ ও কর্মশালা পরিচালনায় নির্বাচিত প্রশিক্ষকদেরও এ সময়ের মধ্যেই প্রশিক্ষিত করা হবে।

মধ্যমেয়াদি কর্মসূচিতে স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী, প্রকৌশলী, চিকিতৎসক ও মধ্যম আয়ের ব্যক্তিদের প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। দীর্ঘমেয়াদে অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-কর্মচারী, গৃহিণী, কৃষক, দিনমজুরসহ সর্বস্তরের মানুষকে এ কর্মসূচির আওতায় আনা হবে।