মার্জিন ঋণ ও সুদ মওকুফ করলে কর থেকে অব্যবহতি

NBR-logo
শেয়ারটাইম্‌স২৪ডটকমঃ পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের মার্জিন ঋণ ও ঋণের সুদ মওকুফজনিত প্রাপ্ত সুবিধার উপর বিনেয়াগকারীদের কর থেকে অব্যবহতি দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। তবে ট্রেকহোল্ডার বা সিকিউরিটিজ হাউজ যদি এ সুদ মওকুফ করে তাহলেই বিনিয়োগকারীদের মওকুফজনিত সুবিধার ওপর কোনো কর দিতে হবে না। গত ২৯ আগস্ট এ নিয়ে একটি পরিপত্র জারি করেছে এনবিআর। তবে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত মওকুফ করলেই এ সুবিধা ভোগ করবে বিনিয়োগকারীরা।

এনবিআরের কর নীতি উইং পরিপত্র -০১/২০১৬-১৭ এর ১৩ পৃষ্ঠায় ক্রমিক নং ৯ এর (ক) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের মার্জিন ঋণ ও সুদ মওকুফজনিত প্রাপ্ত সুবিধার করযোগ্যতা সংক্রান্ত উপধারা (১১) এর সংশোধন করা হয়েছে। অর্থ আইন ২০১৬ এর মাধ্যমে আয়কর অধ্যাদেশ, ১৯৮৪ এর ধারা ১৯ এর উপধারা (১১) তে একটি নতুন প্রোভাইসো (অনুবিধি) সংযোজন করা হয়েছে।

নতুন প্রোভাইসোর বিধান মোতাবেক, পুঁজিবাজারে কোন ব্যক্তি (individual) বিনিয়োগকারী কর্তৃক কোন শেয়ার, ডিবেঞ্চার, মিউচ্যুয়াল ফান্ড অথবা অন্যকোন সিকিউরিটিজ এ বিনিয়োগে গৃহীত মার্জিন ঋণ ও ঋণের সুদ TREC- ধারী কর্তৃক মওকুফ করা হলে মওকুফজনিত সুবিধার মোট অংক ১০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ধারা ১৯ (১১) এর আওতায় করযোগ্যতার আওতা বহির্ভূত রাখা হয়েছে। তবে মওকুফজনিত মোট সুবিধা ১০ লক্ষ টাকার অধিক হলে ১০ লক্ষ টাকার অতিরিক্ত অংকের জন্য ধারা ১৯ (১১) এর করযোগ্যতার বিধান প্রযোজ্য হবে।