সামিটের বুধবারের লেনদেন বাতিল : ডিজিএম ওএসডি

summitpower
শেয়ারটাইম্‌স২৪ডটকম: শেয়ারবাজারের তালিকাভুক্ত জ্বালানি ও বিদ্যুত খাতের সামিট পাওয়ার লিমিটেডের বুধবারের (২৪ আগস্ট) লেনদেনের সেটেলমেন্ট বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) পরিচালনা পর্ষদ। ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

একইসঙ্গে সামিট পাওয়ারের সঙ্গে একই গ্রুপের তিন কোম্পানির একীভূতকরণ নিয়ে তৈরি জটিলতায় ডিএসই মার্কেট ডেভেলপমেন্ট/অপারেশন বিভাগের উপ-মহাব্যবস্থাপক (ডিজিএম) নিজাম উদ্দিন আহমেদকে ওএসডি করা হয়েছে। এছাড়া প্রধান অর্থ কর্মকর্তা (সিএফও) আবদুল মতিন পাটওয়ারীকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এর আগে গত শুক্রবার (২৬ আগস্ট) একই বিষয়ে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি করে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। ৪ সদস্য বিশিষ্ট এ কমিটির প্রধান হলেন- বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক মাহবুবুল আলম। বাকি তিন সদস্য হলেন- পরিচালক মনসুর রহমান, মোহাম্মদ রেজাউল করিম ও উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ফখরুল ইসলাম মজুমদার।

এই কমিটিকে আগামী ১৫ কার্য দিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কমিশন।

এ বিষয়ে ডিএসইর পরিচালক রকিবুর রহমান বলেন, সামিট পাওয়ারের বিষয়ে ডিএসইর ম্যানেজমেন্ট বিভাগ কোনো অনিয়ম করেছি কি না তা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে দায়িত্বে অবহেলার কারণে একজন কর্মকর্তাকে ওএসডি করা হয়েছে। একইসঙ্গে বুধবারের লেনদেনের সেটেলমেন্ট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

উল্লেখ্য, তালিকাভুক্ত সামিট পাওয়ারের সঙ্গে একই গ্রুপের তিন কোম্পানি সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার, সামিট নারায়ণগঞ্জ পাওয়ার এবং সামিট উত্তরাঞ্চল পাওয়ার একীভূত হয়ে একটি কোম্পানি হয়েছে। কোম্পানি আইন অনুযায়ী হাইকোর্টের কাছ থেকে অনুমতি পেয়ে গত ২৪ আগস্ট একীভূত হওয়া তিন কোম্পানি অবসায়িত হয়েছে। এরমধ্যে সামিট পূর্বাঞ্চল পাওয়ার শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত থাকায় কোম্পানিটির আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ওইদিন থেকে কোম্পানিটিকে শেয়ারবাজার থেকে তালিকাচ্যুত করা হয়।

সামিট পূর্বাঞ্চলের একটি শেয়ারের বিপরীতে সামিট পাওয়ারের ১ দশমিক ৩০৯টি শেয়ার পাবেন শেয়ার হোল্ডাররা। সামিট উত্তরাঞ্চল পাওয়ার কোম্পানির একটি শেয়ারের বিপরীতে সামিট পাওয়ারের ১ দশমিক ৬৬৮টি এবং সামিট নারায়ণগঞ্জ পাওয়ারের একটি শেয়ারের বিপরীতে সামিট পাওয়ারের ১ দশমিক ৪৭৫টি শেয়ার দেওয়া হয়।