সূচকের উত্থান : বাজার মুলধন বেড়েছে ৮ হাজার ৭৩৪ কোটি টাকা

ssj
শেয়ারটাইম্‌স২৪ডটকমঃ দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সূচকের উত্থান ঘটেছে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন হওয়া ৫ কার্যদিবসের মধ্যে তিন দিনই কমেছে সূচক। তবে বাকি দুই কার্যদিবস বাড়লেও এর মাত্রা ছিলো অত্যাধিক। এরই ধারাবাহিকতায় গত সপ্তাহে সব ধরনের সূচকের উত্থান ঘটে। এদিকে সূচক কিছুটা বাড়লেও কমেছে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ার দর। আর টাকার অংকেও গত সপ্তাহে লেনদেনের পরিমান কিছুটা কমেছে। আলোচিত সপ্তাহটিতে ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ০.৪১ শতাংশ।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৪ লাখ ৩ হাজার ৩৯৫ কোটি ৫২ লাখ ৮৮ হাজার ১৭৩ টাকায়। আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস ডিএসইর বাজার মূলধন ছিল ৩ লাখ ৯৪ হাজার ৬৫১ কোটি ৬৩ লাখ ২২ হাজার ৫১৪ টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধান ডিএসইতে বাজার মূলধন ৮ হাজার ৭৪৩ কোটি ৮৯ লাখ ৬৬ হাজার ১৯৯ টাকা বা ২.২২ শতাংশ বেড়েছে।

সাপ্তাহিক বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, সপ্তাহ শেষে ডিএসই ব্রড ইনডেক্স বা ডিএসইএক্স সূচক বেড়েছে ০.৩৩ শতাংশ বা ১৬.৫৪ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসই-৩০ বেড়েছে ০.৫৬ শতাংশ বা ৯.৫২ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক কমেছে ০.০৩ শতাংশ বা ০.৩১ পয়েন্ট। আর সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে তালিকাভুক্ত মোট ৩৬৩টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৪৮টির কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৯২টির, অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টির এবং লেনদেন হয়নি ৪টির। এগুলোর ওপর ভর করে গত সপ্তাহে লেনদেন মোট ৪ হাজার ৫৫৪ কোটি ৭৮ লাখ ৮১ হাজার ৪২৫ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়। তবে এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয় ৫ হাজার ৫৭৩ কোটি ৭২ লাখ ৭০ হাজার ৩৯৩ টাকার। সেই হিসাবে সমাপ্ত সপ্তাহে লেনদেন কমেছে ০.৪১ শতাংশ।

আর সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮১.৮৫ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ১৪.৪১ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ১.৬৪ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে ২.৩৭ শতাংশ।

সপ্তাহ শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সেচঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ৫১.৫৮ পয়েন্ট বা ০.৬০ শতাংশ বেড়ে সপ্তাহ শেষে দাঁড়িয়েছে ৮ হাজার ৫৭৫ পয়েন্টে। আর সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে হাতবদল হওয়ার ৩১৭টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ১৩৩ কোম্পানির। আর দর কমেছে ১৫২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩২টির। এগুলোর ওপর ভর করে বিদায়ী সপ্তাহে ২১৭ কোটি ৫২ লাখ ৮৮ হাজার ৬৪ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।